ছাদ কৃষিটবে চাষ পদ্ধতিবাগানসাম্প্রতিক পোষ্ট

ছাদের টবে বা ড্রামে লাউ চাষ পদ্ধতি

ছাদের টবে বা ড্রামে লাউ চাষ পদ্ধতি আমাদের দেশে শীতকালীন সবজিগুলোর মধ্যে লাউ অন্যতম। লাউ যেমন সবজি হিসাবে অনেক সুস্বাদু তেমনি লাউয়ের পাতাও শাক হিসাবে অনেক উপাদেয়। আমাদের দেশে বিভিন্ন প্রজাতির লাউ রয়েছে। জাতের প্রকার ভেদের কারণে এর আকার-আকৃতি ও বর্ণ ভিন্ন হয়। তবে বর্তমান সময়ে কিছু উচ্চ ফলনশীল জাতের চাষ হয় বলে প্রায় সারা বছরই এ সবজিটি বাজারে পাওয়া যায়। আপনি চাইলে আপনার ছাদের টবে বা ড্রামে লাউ চাষ করতে পারেন। এতে আপনার পরিবারের জন্য টাটকা সবজি যেমন পাবেন তেমনি ফলন বেশি হলে করতে পারেন বাড়তি রোজগার। লাউ এর আগাম ফসল ঘরে তুলতে চাইলে এখনই ড্রামে বা টবে লাউ এর চারা রোপনের উপযুক্ত সময়। উত্তম জাত নির্বাচন: ভালো জাত নির্বাচনে আপনি ভালো ফসল পাবেন তাই লাউ এর জাত নির্বাচন করুন একটু ভেবে চিন্তে। বর্তমানে বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট উচ্চফলনশীল লাউয়ের একটি জাত উদ্ভাবন করেছে বারি লাউ-১ নামে । এর সুব

বিস্তারিত পড়ুন
অন্যান্য ফসলচাষাবাদ পদ্ধতিসবজি ফসল চাষসাম্প্রতিক পোষ্ট

স্কোয়াশ চাষ পদ্ধতি

স্কোয়াশ চাষ পদ্ধতি (Squash Farming) স্কোয়াসের জাত : স্কোয়াস একটি বিদেশী সবজি। বাংলাদেশে নতুনভাবে এটি চাষ শুরু হয়েছে। ভারতে চাষাবাদ হচ্ছে এরকম কয়েকটি কয়েকটি জাতের -zucchini (Cucurbita pepo) একটি জনপ্রিয় জাত। আমাদের দেশে এরকম লম্বা স্কোয়াস চাষাবাদ হচ্ছে। বিভিন্ন বেসরকারী কোম্পানী স্কোয়াসের বীজ বাজারজাত করছে। বিস্তারিত তথ্য এখনো পাওয়া যায় নি। স্কোয়াসের বপন এবং রোপণ প্রযুক্তি: স্কোয়াসের বীজ একটি একটি করে বপন করা যায় আবার একটি মাদায় একাধিক বপন করা যায়। প্রায় ৩ ফুট দূরে দূরে একটি মাদায় ২-৩ টি বীজ বপন করা হয়। বীজ প্রায় ১ ইঞ্চি গভীরে বপন করতে হবে। চারা গজানোর পর মাটি তুলে ৬-১২ ইঞ্চি উঁচু করে দিতে হবে এবং ১-২ ফুট প্রশ্বস্থ করতে হবে। বীজ বপনের ৪-৬ সপ্তাহ পরে ফল ধরা আরম্ভ হবে। মালচিং: স্কোয়াস চাষে মালচিং গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। চারা টিকে গেলেই গোড়ার চারপাশে মালচিং করলে তাপমাত্রা ঠিক

বিস্তারিত পড়ুন
অন্যান্য ফসলগোখাদ্য তৈরিকরণচাষাবাদ পদ্ধতিসাম্প্রতিক পোষ্ট

সুদান ঘাসের বীজ থেকে ঘাস চাষ পদ্ধতি

সুদান ঘাসের বীজ থেকে ঘাস চাষ পদ্ধতি (Forage Sudangrass Farming) আমাদের দেশে গবাদিপশুর পালন অনেক বেড়েছে কিন্তু সেই তুলনায় গোখাদ্য অনেক চ্যালেঞ্জ এর মুখে। সামনে বর্ষার মৌসুম। এ সময় দেশের নিম্নভূমিগুলো পানিতে তলিয়ে যায়। এসব অঞ্চলের গরু-মহিষের জন্য ঘাস তো দূরের কথা, কয়েক মুঠো খড় জোটানোও কঠিন। এ সময় অভাবের তাড়নায় অনেকে গরু-মহিষ কম দামে বিক্রি করে দেন। অনেকের গরু, মহিষ, ছাগল ও ভেড়া খাদ্যাভাবে দুর্বল হয়ে যায় । বর্ষা মৌসুমে বাড়ির পাশের জমিতে ধান উৎপাদন করা সম্ভব হয় না। অতিরিক্ত বৃষ্টির কারণে পতিত জমিতে পানি ও আগাছা বেশি হয়ে থাকে। ফসল উৎপাদন ব্যাহত হয়। তাই এরকম লাখ লাখ একর পতিত জমি সারা বছরই খালি পড়ে থাকে। একটু সচেতন হলেই আমরা এ জমিগুলো কাজে লাগিয়ে বিপুল অর্থ উপার্জন করতে পারি । বর্ষা মৌসুমসহ সারা বছরই এ জমিগুলোতে নেপিয়ার জাতীয় ঘাস চাষ করে গো-সম্পদের প্রসার ঘটানো যায় । নেপিয়ার ঘাস পরিত্যক্ত জায়

বিস্তারিত পড়ুন
চাষাবাদ পদ্ধতিছাদ কৃষিছাদবাগান খুঁটিনাটিছাদে বাগানটবে চাষ পদ্ধতিবাগানবারান্দায় বাগানসবজি ফসল চাষসাম্প্রতিক পোষ্ট

ছাদে পুদিনার চাষ পদ্ধতি

ছাদে পুদিনার চাষ পদ্ধতি পুদিনা পাতা সাধারণতঃ তরি-তরকারির সাথে সুগন্ধি হিসেবে ব্যবহার করা হয়। বিভিন্ন রকমের বড়া তৈরির কাজে পুদিনা পাতার অবদান রয়েছে । বিশেষ করে রমজানের এই মাসে বাড়ি কিংবা ইফতারের দোকানগুলোতে ব্যাপকভাবে পুদিনা পাতা ব্যবহার হয়ে থাকে । পুদিনা একটি সাধারণ আগাছা ধরনের গাছ। কাণ্ড ও পাতা বেশ নরম। কাণ্ডের রঙ বেগুনি, পাতার রঙ সবুজ। পাতা ডিম্বাকার, পাতার কিনারা খাঁজকাটা । সারা বছর পুদিনা পাতা হাতের কাছে পেতে চাইলে বাড়ির ছাদ অথবা বারান্দায় অতি সহজেই এই পুদিনা পাতার চাষ করা যায় । চাষ পদ্ধতিঃ প্রায় সব মাটিতেই পুদিনা পাতার চাষ করা যায় । ১০-১২ ইঞ্চি মাটির টব এমনকি তেলের কন্টেইনারেও এর চাষ সম্বব । টবের মাটির সংগে কিছু জৈব সার অথবা গোবর ভালভাবে মিশিয়ে তাতে পানি দিয়ে ৬/৭ দিন রেখে দিতে হবে । মাটি কিছুটা শুকিয়ে এলে তাতে পুদিনা পাতার কাটিং লাগিয়ে দিতে হবে । কাটিং সংগ্রহের সময় পুরানো ডাল শি

বিস্তারিত পড়ুন