কৃষির প্রযুক্তিমৎস্যসম্পদমাছ চাষসাম্প্রতিক পোষ্ট

বায়োফ্লক পদ্ধতিতে মাছ চাষ পদ্ধতি বিস্তারিত

বায়োফ্লক প্রযুক্তি মাছ চাষের একটি টেকসই এবং পরিবেশগত ভাবে বন্ধুত্বপূর্ণ মাছ চাষ পদ্ধতি। বায়োফ্লক হল প্রোটিন সমৃদ্ধ জৈব পদার্থ এবং অণুজীব, যেমন- ডায়াটম, ব্যাকটেরিয়া, প্রোটোজোয়া, অ্যালজি, ফেকাল পিলেট, জীবদেহের ধ্বংসাবশেষ এবং অন্যান্য অমেরুদণ্ডী প্রাণী ইত্যাদির ম্যাক্রো-এগ্রিগেট। এটি এমন একটি একোয়াকালচার সিস্টেম যা কার্যকর ভাবে পুষ্টি উপাদানের সর্বোচ্চ ব্যবহার নিশ্চিত করে খুব কম পানি পরিবর্তন বা একবারও পানি পরিবর্তন না করে। এই প্রযুক্তি পানিতে বিদ্যমান কার্বন ও নাইট্রোজেন এর সাম্যাবস্থা নিশ্চিত করে পানির গুণাগুণ বৃদ্ধি ও ক্ষতিকর রোগ সৃষ্টিকারী জীবাণু নিয়ন্ত্রণ করে। বায়োফ্লক প্রযুক্তির মূলনীতি হল ইহা হেটারোট্রপিক ব্যাকটেরিয়ার বংশবৃদ্ধিকে ত্বরান্বিত করে, পানিতে উচ্চ কার্বন-নাইট্রোজেন অনুপাত নিশ্চিত করার মাধ্যমে যা ক্ষতিকর অ্যামোনিয়াকে অণুজীব আমিষে রূপান্তর করে। এটি একটি পরিবেশ বান্ধব বিক...

বিস্তারিত পড়ুন
কৃষি প্রযুক্তিকৃষির তথ্যমৎস্যসম্পদমাছ চাষ

বাড়ির চৌবাচ্চাতে মাছ চাষ করে উপার্জন করুন

বাড়ির চৌবাচ্চাতে মাছ চাষ করে উপার্জন করুন আমাদের অনেকেরই বাড়ির মধ্যে চৌবাচ্চা আছে। অনেকে তা ব্যবহার করে থাকি, আবার অনেকের অব্যবহারে তা পরিত্যক্ত। কিন্তু জানেন কি এই চৌবাচ্চায় আপনি করতে পারেন কই, সিঙি মাছের চাষ। কম সময়ে অধিক পরিমাণে মাছ চাষ করতে নতুন কৌশলের প্রশিক্ষণ কৃষি দপ্তরের। পূর্ব বর্ধমান জেলার আউশগ্রাম ১ নম্বর ব্লকের করুঞ্জি গ্রামে বায়োফ্লক পদ্ধতিতে মাছ চাষ শুরু করা হয়েছে। যারা চাষে আগ্রহী, কৃষি দপ্তর থেকে তাদের মাছের চারা দেওয়া হচ্ছে। করুঞ্জি গ্রামে দু’জন উপভোক্তাকে ৫০০০টি করে মাছের চারা দেওয়া হয়েছে। তারা তাদের বাড়ির চৌবাচ্চায় একজন কই ও অপরজন সিঙ্গি মাছের চাষ করছেন। পূর্ব বর্ধমানের উপ কৃষি অধিকর্তা আবদুস সালাম জানান, “আতমা প্রকল্পে বায়োফ্লক পদ্ধতিতে খুব কম সময়ে অল্প জায়গায় বেশি পরিমাণে মাছচাষ শুরু করা হয়েছে। বিজ্ঞানসম্মত পদ্ধতিতে সরকারিভাবে এই চাষের প্রশিক্ষণ এবং চারামা...

বিস্তারিত পড়ুন
মৎস্যসম্পদমাছ চাষসাম্প্রতিক পোষ্ট

ভাসমান খাঁচায় মাছ চাষ পদ্ধতি

ভাসমান খাঁচায় মাছ চাষ পদ্ধতি খাঁচায় হাঁস-মুরগী পালনের পাশাপাশি এবার নদীতে ও পুকুরে মানুষ খাঁচায় বা জালের খাঁচায় মাছের চাষ শুরু করেছেন যা সত্যি অবাক করার মতো ব্যাপার। খাঁচায় মুরগী পালনের পদ্ধতিটি যেমন ত্বরিৎ গতিতে প্রসারিত হয়েছে, ফলশ্রুতিতে অনেক মানুষই আজ এ পেশায় নিজের কর্ম সংস্থানের ব্যাবস্থা করে নিয়েছেন। জালের খাঁচায় মাছের চাষ পদ্ধতিও একদিন জনপ্রিয় হবে এবং এ খাতে হাজারও মানুষের কর্মের সংস্থান হবে, উপরন্তু আমিষের চাহিদাও পূরণ হবে। যাদের পুকুর নেই মাছ চাষ আজ আর তাদের জন্য সমস্যাই নয়। জালের খাঁচায় মাছ চাষের আদর্শ ক্ষেত্রই হচ্ছে নদী-নালা, খাল-বিলসহ উন্মুক্ত জলাশয়। যেখানে প্রবল স্রোত নেই অথচ আছে পানির স্বাভাবিক প্রবাহ। মাছ চাষের জন্য উত্তম জায়গা হচ্ছে এমন উৎসগুলো। মশারির মতো বিশাল আকারের জাল প্রবহমান পানিতে ডুবিয়ে চারকোণা বেধেঁ তাতে ২”- ৩” সাইজের পোনা ছেড়ে চার মাস লালন-পা...

বিস্তারিত পড়ুন
কৃষি তথ্যমাছ চাষমাছের রোগবালাই দমন

তেলাপিয়া মাছের রোগবালাই ও দমন পদ্ধতি

তেলাপিয়া মাছের রোগবালাই ও দমন পদ্ধতি প্রায় ৩০০০ বছর আগে থেকে পৃথিবীব্যাপী তেলাপিয়া মাছের চাষ হয়ে আসছে। চাষকৃত সকল মাছের মধ্যে দ্বিতীয় স্থান দখলকারী এই মাছের সবচেয়ে উৎপাদন বেশি হয় এশিয়াতে। চীন উৎপাদন করে সর্বোচ্চ ৫০% ও বাংলাদেশ প্রায় ৭%। তেলাপিয়া উৎপাদনে এশিয়ার ৮ম স্থান অধিকারী বাংলাদেশে whole frozen, fillet frozen I fillet fresh এই তিন ধরনের তেলাপিয়ার চাষ করে বছরে উৎপাদন হয় প্রায় ২.৬ মিলিয়ন টন। খাঁচায় চাষকৃত তেলাপিয়া মাছের রোগ ও প্রতিকার নিয়ে আলোচনা করা হল:  রোগের লক্ষণ :  ১. মাছের কানকোর কিছু অংশ বিবর্ণ হয়ে যায়,  ২. অঙ্কীয়দেশে কিছু অনাকাক্সিক্ষত দাগ দেখা যায়,  ৩. মাছের পিত্তথলী স্বাভাবিকের চেয়ে কিছুটা বড় হয়ে যায়,  ৪. কেবল ১০০ থেকে ৪০০ গ্রামের মাছেই এই রোগ দেখা যায়,  ৫. আক্রান্ত- হওয়ার সাথে সাথে মাছ দ্রুত মারা যায়,  ৬. মৃত...

বিস্তারিত পড়ুন
মৎস্যসম্পদমাছ চাষসাম্প্রতিক পোষ্ট

শোল মাছ চাষ পদ্ধতি

শোল মাছ চাষ পদ্ধতি শোল মাছকে আমরা ‘রাক্ষুসে মাছ’ বলে থাকি। শোল মাছ বাজারের দামি মাছ। এই মাছ দামি হলেও চাষে খরচ খুবই কম। শোল মাছ সব ধরনের দুর্যোগ বা প্রতিকূল পরিস্থিতি সহ্য করতে পারে। মা শোল মাছই নিজেদের মতো করে ডিম নার্সিং ও পোনা লালন করে। পোনা মজুত বাংলাদেশে বাণিজ্যিকভাবে শোল মাছ চাষ না হওয়ায় প্রাকৃতিকভাবে সংগ্রহের ওপর জোর দিতে হবে। বৈশাখ মাস শোল মাছের প্রজনন মৌসুম। বৈশাখ মাসের প্রথম থেকে শোল মাছ বাচ্চা দিতে শুরু করে। বাচ্চাগুলো এক ঝাঁকে থাকে। সেই সময় হাওর-বাঁওড়, পুকুর থেকে সপ্তাহখানেক বয়সের বাচ্চা সংগ্রহ করতে হবে। পোনা পাওয়া না গেলে বড় শোল মাছ সংগ্রহ করে পুকুরে ছেড়ে দিতে হবে। এককভাবে প্রতি শতাংশে ১০টি দেয়া যেতে পারে। মিশ্র পদ্ধতিতে চাষের জন্য প্রতি শতাংশে ৪টি। একটি প্রাপ্তবয়স্ক শোল মাছ লম্বায় ২.৫-৩ ফুট হতে পারে। পুকুর প্রস্তুতি যে কোনো পুকুরেই শোল মাছ চাষ করা যায়। তবে তাকে উ...

বিস্তারিত পড়ুন