পোকা দমনপোকামাকড় ও রোগবালাইপোকামাকড় দমনফসলের রোগ বালাই দমন

আমের মিলিবাগ সমস্যা

আমের মিলিবাগ সমস্যা সাদা সাদা অসংখ্য পোকা একসাথে থাকে কখনও কখনও বিচ্ছিন্ন ভাবেও থাকে।এরা রস চুষে খায় এবং এক ধরনের আঠালো মিষ্টি রস নিঃস্বরণ করে যা খাবার জন্য পিপিলিকার আগমন ঘটে। এর আক্রমণ বেশি হলে শুটি মোল্ড ছত্রাকের আক্রমণ ঘটে এবং আক্রান্ত অংশ এমনকি পুরো গাছ মরে যায় । এর প্রতিকার হল ১. প্রাথমিক অবস্থায় হাত দিয়ে পিশে পোকা মেরে ফেলা ২. ব্রাশ দিয়ে ঘসে পোকা মাটিতে ফেলে মেরে ফেলা ।৩. ইমিডাক্লোরোপ্রিড গ্রুপের কীটনাশক যেমন : ইমিটাফ বা ২ মি.লি. / লি. হারে পানিতে মিশিয়ে স্প্রে করা। পরবর্তীতে যা যা করবেন না ১. বাগান অপরিচ্ছন্ন রাখবেন না পরবর্তীতে যা যা করবেন ০. ফেব্রুয়ারি- মার্চ মাসের দিকে গাছের গোড়ায় আঠাযুক্ত ফিতা বা প্লাস্টিকের মসৃণ ফিতা পেচিয়ে বা ফানেল স্থাপন করুন তাতে পোকা গাছ বেয়ে উপরে উঠতে পারবে না। ১.ফল সংগ্রহ শেষ হলে গাছের মরা ডালপালা, ফলের বোটা, রোগ বা পোকা আক্রান্ত ড...

বিস্তারিত পড়ুন
পোকা দমনপোকামাকড় ও রোগবালাইপোকামাকড় দমনফসলের রোগ বালাই দমন

কালিজিরার ফল ছিদ্রকারী পোকা দমন

কালিজিরার ফল ছিদ্রকারী পোকা দমন লক্ষণ পোকার কীড়া ফল ছিদ্র করে বীজ খেয়ে ফেলে । প্রতিকারঃ ১. পোকার ডিম ও কীড়া সংগ্রহ করে মেরে ফেলা । ২. মিশ্র ফসল হিসাবে ধনে পাতা বা তিষির চাষ করা । ৩. রিকর্ড বা ডেসিস ১০মিলি ১০লিটার পানিতে মিশিয়ে ১৫ দিন পর পর ১-২ বার স্প্রে করা । পরবর্তীতে যা যা করবেন না ১. বিলম্বে কালিজিরা বপন করবেন না পরবর্তীতে যা যা করবেন ১.সঠিক দরত্বে বপন করুন ২. উন্নত জাতের চাষ করুন । ...

বিস্তারিত পড়ুন
পোকা দমনপোকামাকড় ও রোগবালাইপোকামাকড় দমনফসলের রোগ বালাই দমন

লেটুসের ফ্লি বিটল পোকা দমন

লেটুসের ফ্লি বিটল পোকা দমন লক্ষণ পূর্ণ বয়স্ক ও বাচ্চা উভয়ই ক্ষতি করে । পূর্ণ বয়স্করা চারা গাছের বেশি ক্ষতি করে । এরা পাতায় ছোট ছোট ছিদ্র করে খায় । আক্রান্ত পাতায় অসংখ্য ছিদ্র হয় । প্রতিকার : ১. হাত জাল দ্বারা পোকা সংগ্রহ । ২. পরিস্কার পরিচ্ছন্ন চাষাবাদ । ৩. চারা গাছ জাল দিয়ে ঢেকে দেওয়া । ৪. আক্রান্ত গাছে ছাই ছিটানো ৫ ০.৫% ঘনত্বের সাবান পানি অথবা ৫ মিলি তরল সাবান প্রতি লিটার পানিতে মিশিয়ে স্প্রে করা । ৬. ৫০০ গ্রাম নিম বীজের শাঁস পিষে ১০ লিটার পানিতে ১২ ঘন্টা ভিজিয়ে রেখে তা ছেঁকে আক্রান্ত ক্ষেতে স্প্রে করলে উপকার পাওয়া যেতে পারে । পরবর্তীতে যা যা করবেন না : ১. স্প্রে করার পর ১৫ দিনের মধ্যে সেই ফসল খাবেন না বা বিক্রি করবেন না পরবর্তীতে যা যা করবেন : ১. আগাছা পরিস্কার করুন ...

বিস্তারিত পড়ুন
পোকা দমনপোকামাকড় ও রোগবালাইপোকামাকড় দমনফসলের রোগ বালাই দমন

চালকুমড়ার পাতামোড়ানো পোকা দমন

চালকুমড়ার পাতামোড়ানো পোকা দমন লক্ষণ কীড়া অবস্থায় পাতা মোড়ায় এবং সবুজ অংশ খায় । এটি সাধারণত কচি পাতাগুলো আক্রমণ করে থাকে প্রতিকার •ক্ষেত পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখা । • আক্রন্ত পাতা সংগ্রহ করে ধ্বংস করা । ক্ষেতে ডাল পুতে পাখি বসার ব্যবস্থা করা ( বিঘা প্রতি ৮-১০ টি) • আক্রমণ বেশি হলে প্রতি লিটার পানিতে সুমিথিয়ন বা ফলিথিয়ন-২ মিঃলিঃ মিশিয়ে ভালভাবে স্প্রে করা । ...

বিস্তারিত পড়ুন
পোকা দমনপোকামাকড় ও রোগবালাইপোকামাকড় দমনফসলের রোগ বালাই দমন

ব্রোকোলির টোবাকো ক্যাটারপিলার পোকা দমন

ব্রোকোলির টোবাকো ক্যাটারপিলার পোকা দমন লক্ষণ ডিম থেকে কীড়া বের হয়ে পাতায় একত্রে গাদা করে থাকে এবং পাতার সবুজ অংশ খেয়ে বড় হতে থাকে । এভাবে খাওয়ার ফলে পাতা জালের মত হয়ে যাওয়া পাতায় অনেক কীড়া দেখতে পাওয়া যায় । কয়েক দিনের মধ্যে এরা ক্ষেতে ছড়িয়ে পড়ে এবং বড় বড় ছিদ্র করে পাতা খেয়ে ফেলে । প্রতিকার কীড়াসহ গাছ থেকে পাতা ছিড়ে নিয়ে পা দিয়ে পিষে পোকা মেরে ফেলতে হবে ছড়িযে পড়া বড় কীড়াগুলোকে ধরে ধরে মেরে ফেলতে হবে । এভাবে অতি সহজেই এ পোকা দমন করা যায় ।চারা লাগানোর এক সপ্তাহের মধ্যেই জমিতে ফেরোমন ফাঁদ পাততে হবে । ফেরোমন ফাঁদ পাতার পরও যদি আক্রমণের চিহ্ন পরিলক্ষিত হয় তবে জৈব বালাইনাশক এসএনপিভি প্রতি লিটার পানিতে ০.২ গ্রাম হারে মিশিয়ে ১০-১২ দিন পর পর ২-৩ বার স্প্রে করতে হবে । প্রতি সপ্তাহে একবার করে কীড়া নষ্টকারী পরজীবী পোকা, ব্রাকন হেবিটর পর্যায়ক্রমিকভাবে আবমুক্তায়িত করলে এ পোকার আক্রমণের হ...

বিস্তারিত পড়ুন