Improving Agribusiness Insurance & Farmers Law

বাছুরের কিছু সাধারণ সমস্যা ও প্রতিকার

সকল সাম্প্রতিক পোষ্ট নোটিফিকেশন পেতে সাবস্ক্রাইব করুন

বাছুরের কিছু সাধারণ সমস্যা ও প্রতিকার

বাছুরের বেশ কিছু সাধারণ সমস্যা দেখা যায়। এই সব সমস্যার প্রতি মনোযোগী হতে হবে। তাহলে পরবর্তীতে সুস্থ সবল গাভী বা ষাঁড় পাওয়া যায়। অন্যথায় অসুস্থ রোগা দুর্বল গরু উৎপন্ন হবে।

রক্তস্বল্পতা

বাছুরের কেনো কারণে রক্তস্বল্পতা দেখা দিলে দুর্বল হয়ে পড়ে ৷ তখন মায়ের রক্ত বাছুরকে প্রতি ১ কেজি দৈহিক ওজন হিসাবে ১০-১২ মিঃলিঃ গলার শিরায় মধ্যে ধীরে ধীরে ইনজেকশন দিতে হবে৷ রক্ত সঞ্চালন ছাড়াও ভিটামিন জাতীয় ঔষধ যেমন- বিকোনেক্স অথবা সানকেল ভেট অথবা বায়োনাল ফোঁর্ট এর যে কোনো একটি পরামর্শমতো ২-৪ সিসি করে মাংসে ৮-১০ দিন ইনজেকশন দিতে হবে ৷

ডায়রিয়া

• বাছুরের জন্মের ২-৩ সপ্তাহের মধ্যে পাতলা পায়খানা দেখা দিলে পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি ও খাবার স্যালাইন খেতে দিতে হবে৷ এ সময়ে স্বাভাবিকের চেয়ে অর্ধেক পরিমাণ দুধ খাওয়াতে হবে ৷

• পায়খানা বন্ধ না হলে সালফোনামাইড জাতের ঔষধ যেমন- স্ট্রেপটোসালফা অথবা স্ট্রিনামাইড অথবা স্ট্রিনাসিন নাসিন অথবা ট্রিমাভেট অথবা ট্রাইসালফা অথবা ট্রাইসালফোন এস এর যেকোনো একটি প্রতি ৩৫ কেজি দৈহিক ওজনের জন্য ১ বোলাস হারে খাওয়াতে হবে ৷

• প্রয়োজনে গলার শিরায় ০.ঌ% সাধারণ স্যালাইন অথবা কলেরা স্যালাইন এবং মালটি-ভিটামিন যেমন- বিকোনেক্স অথবা সানক্যাল ভেট অথবা বায়োনাল ফোর্ট অথবা ভিটাটনিক এর যেকোনো একটি ইনজেকশন দিতে হবে ৷

ছবি সূত্রঃ ইন্টারনেট।

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.