কৃষি সংবাদসাম্প্রতিক পোষ্ট

করোনার অজুহাতে নিত্যপণ্যের দাম বাড়ালে কঠোর ব্যবস্থা নিবে র‍্যাব

করোনার অজুহাতে নিত্যপণ্যের দাম বাড়ালে কঠোর ব্যবস্থা নিবে র‍্যাব করোনা ভাইরাসের অজুহাতে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম বাড়ালে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। র‌্যাব সদর দফতরে আজ বৃহস্পতিবার আয়োজিত এক প্রেসব্রিফিংয়ে র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের মুখপাত্র (পরিচালক) লেফটেন্যান্ট কর্নেল সারওয়ার-বিন-কাশেম সাংবাদিকদের বলেন ‘বর্তমান বাজার মূল্য সহনীয় পর্যায়ে রাখার লক্ষ্যে র‌্যাব বাজার তদারকি ও গোয়েন্দা নজরদারি বাড়িয়েছে’। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে সারওয়ার-বিন-কাশেম বলেন, ‘নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম যেন সহনীয় পর্যায়ে থাকে, সে’জন্য আমরা অসাধু ব্যবসায়ীদের নিবৃত করার চেষ্টা করছি’। করোনা নিয়ে আতঙ্কিত না হবার আহ্বান জানিয়ে র‌্যাবের এই কর্মকর্তা বলেন, বাজারে নিত্যপণ্যের অভাব নেই। সংকটও নেই বরং যথেষ্ট জোগান রয়েছে। সুতরাং বেশি বেশি কেনাকাটা করে বাজারে কৃত্রিম সংকট তৈরি করবেন না। করোনায় আতঙ্কিত...

বিস্তারিত পড়ুন
কৃষি সংবাদসাম্প্রতিক পোষ্ট

সিকৃবির মেডিসিন বিভাগের বিনামূল্যে চিকিৎসা ও টিকাদান

সিকৃবির মেডিসিন বিভাগের বিনামূল্যে চিকিৎসা ও টিকাদান সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (সিকৃবি) ভেটেরিনারি অ্যানিম্যাল অ্যান্ড বায়োমেডিক্যাল অনুষদের মেডিসিন ডিপার্টমেন্টের আয়োজনে বিনামূল্যে গবাদিপশুর চিকিৎসা ও টিকাদান কর্মসূচি ২০২০ পালিত হয়েছে। মঙ্গলবার (১০ মার্চ) সিলেট শহরের লাক্কাতুরা স্টেডিয়াম সংলগ্ন এলাকায় এই ক্যাম্পেইনের আয়োজন করা হয়। ক্যাম্পেইনে আয়োজক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. মুক্তার হোসেন, সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. বাশির উদ্দিন। ক্যাম্পেইনের সার্বিক তত্ত্বাবধায়নে ছিলেন মেডিসিন বিভাগের প্রভাষক ডা. মো. শাহিদুর রাহমান চৌধুরী। এছাড়াও ভেটেরিনারি অ্যানিম্যাল অ্যান্ড বায়োমেডিক্যাল সায়েন্সেস অনুষদের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পেইনে অংশগ্রহণ করে। সকাল ৮টায় ক্যাম্পেইন শুরু হয়ে দুপুর ১টায় শেষ হয়। এ সময় লাক্কাতুরা স্টেডিয়াম সংলগ্ন এলাকার প্রায় ৪০০ পশুকে বিনা মূ...

বিস্তারিত পড়ুন
উন্নত প্রযুক্তিকৃষি সংবাদসাম্প্রতিক পোষ্টহাইড্রোপনিক

কুমিল্লায় মাটিবিহীন সবজি চাষে আগ্রহ বাড়ছে

কুমিল্লায় মাটিবিহীন সবজি চাষে আগ্রহ বাড়ছে জেলায় মাটিবিহীন সবজি চাষে মানুষের আগ্রহ বাড়ছে। এ পদ্ধতিতে খুব সহজে ও কম খরচে বাসা-ফ্লাটে নানা ধরনের সবজি চাষ করা যাবে। কুমিল্লা কৃষি গবেষণা কেন্দ্রে এ পদ্ধতিতে সবজি চাষ করা হচ্ছে, যা দেখার জন্য গবেষণা কেন্দ্রে প্রতিনিয়ত উৎসুক মানুষ ভিড় করছে। এ পদ্ধতিতে প্লাস্টিকের পাত্রে পানি দিয়ে সবজির চাষ করা হয়। তবে পানিতে মেশাতে হয় উদ্ভিদের প্রয়োজনীয় উপাদান। কুমিল্লা কৃষি গবেষণা কেন্দ্রের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা মো. আইয়ুব হোসাইন খান জানান, পাত্রে পানি দিয়ে সবজি চাষকে হাইড্রোপনিক পদ্ধতি বলে। নগরীর বাসা-ফ্লাটের বারান্দা ও করিডরে এ পদ্ধতিতে সবজি চাষ করা যাবে। এতে বিশুদ্ধ সবজি মিলবে। তিনি বলেন, এ পদ্ধতিতে শসা, করলা, লেটুস ও চাল কুমড়া ভালো উৎপাদন হয়। এসব সবজি গাছে পোকার আক্রমণ ও রোগ কম হয়ে থাকে। খরচ ও খুব বেশি নয়। পদ্ধতি সম্পর্কে ওই কর্মকর্তা জানান, প্লাস্টিক...

বিস্তারিত পড়ুন
কৃষি সংবাদনিরাপদ খাদ্য

রাণীনগরে জনপ্রিয় হচ্ছে মালচিং পদ্ধতিতে বিষমুক্ত সবজি চাষ

রাণীনগরে জনপ্রিয় হচ্ছে মালচিং পদ্ধতিতে বিষমুক্ত সবজি চাষ মালচিং মূলত চীন ও জাপান দেশের বিষমুক্ত সবজি চাষের একটি পরিবেশবান্ধব পদ্ধতি। বর্তমানে বাংলাদেশেও কৃষি বিভাগের উদ্যোগে পাইলট প্রোগ্রাম হিসেবে বিভিনś স্থানে এই পদ্ধতিতে বিষমুক্ত সবজি চাষ শুরু হয়েছে। তারই অংশ হিসেবে নওগাঁর রাণীনগর উপজেলাতে এই প্রথম মালচিং পদ্ধতিতে চাষ করা হয়েছে টমেটো। এই পদ্ধতিতে উৎপাদিত বিষমুক্ত সবজির ফলন ও দাম ভালো পাওয়ায় উৎসাহিত হচ্ছেন স্থানীয় অনেক কৃষকরা। কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, বর্তমানে উৎপাদিত সকল সবজিতেই ব্যবহার করা হচ্ছে মাত্রারিক্ত কীটনাশক যা মানব দেহের জন্য খুবই ক্ষতিকর। কীটনাশক কম ব্যবহার করে বিষমুক্ত সবজি উৎপাদনের জন্য কৃষি বিভাগ প্রতিনিয়তই উদ্ভাবন করছে পরিবেশবান্ধব নানা প্রযুক্তি ও পদ্ধতি। সেই পরিবেশ বান্ধব কৃষি প্রযুক্তির মধ্যে একটি মালচিং পদ্ধতি। এই পদ্ধতিতে প্রথমেই পরিমাণমতো খাবার দিয়ে জমি প্র...

বিস্তারিত পড়ুন
কৃষি সংবাদসাম্প্রতিক পোষ্ট

কুড়িগ্রামের চরে সম্ভাবনার দ্বার

কুড়িগ্রামের চরে সম্ভাবনার দ্বার কুড়িগ্রামের চরাঞ্চলে সম্ভাবনার দ্বার খুলেছে সূর্যমুখী চাষ। নদী তীরবর্তী চরাঞ্চলগুলোতে দিন দিন সূর্যমুখী জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। কৃষি বিভাগ চরাঞ্চলের পতিত জমিগুলোতে সূর্যমুখী চাষে নানা উদ্যোগ নিয়েছে। স্থানীয় কৃষকরা মনে করছেন, সরকারি সহযোগিতায় জেলার চরাঞ্চলগুলোতে সূর্যমুখী চাষের প্রসার ঘটানো ও সঠিক বাজার ব্যবস্থাপনা গড়ে তোলা গেলে পাল্টে যেতে পারে অবহেলিত চরাঞ্চলগুলোর দৃশ্যপট। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, চলতি মৌসুমে কুড়িগ্রামের বেশ কিছু কৃষক চরের জমিতে বিপুল পরিমাণ সূর্যমুখী চাষ করেছে। ধু ধু বালু জমিতে এখন সূর্যমুখী ফুলের সমারোহ। শুধু কৃষি বিভাগের সহযোগিতায় এবার জেলার চরাঞ্চলগুলোর ২২ হেক্টর বালু জমিতে সূর্যমুখীর চাষ হয়েছে। উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৬৬ মেট্রিক টন। এছাড়াও বীজ ও সার সহায়তার পাশাপাশি বিভিন্ন মাঠ দিবসের মাধ্যমে সূর্যমুখী চাষে কৃষকদের উৎসাহিত করছে কৃষ...

বিস্তারিত পড়ুন