সাম্প্রতিক পোষ্ট

গবাদিপশুর জলাতঙ্ক লক্ষণ ও করণীয়

গবাদিপশুর জলাতঙ্ক লক্ষণ ও করণীয়

জলাতংক  মানুষসহ সকল গবাদিপশুর ভাইরাসজনিত একটি মারত্মক রোগ। আক্রান্ত পশুর লালাতে এ রোগজীবাণু থাকে এবং আক্রান্ত পশুর কামড়ে সুস্থ পশু বা মানুষ এ রোগ জীবাণু দ্বারা সংক্রমিত হয়। লক্ষণ দেখা দিলে বুঝতে হবে মৃত্যুই এ রোগের নিশ্চিত পরিনতি। শিয়াল ও বাঁদুর এ রোগজীবাণুর বাহক এবং প্রধানতঃ কুকুর আক্রান্ত প্রাণী।  লক্ষণঃ  পশু কান সজাগ ও চোখ

ক্ষুরা রোগ লক্ষন ও করণীয় 

​ক্ষুরা রোগ  ইহা সকল বয়সের গরু-মহিষ ও ছাগল-ভেড়ার ভাইরাসজনিক একটি মারাত্মক অতি ছোঁয়াছে রোগ।  লক্ষণঃ  শরীরের তাপমাত্রা অতি বৃদ্ধি পায়। জিহ্বা, দাঁতের মাড়ি, সম্পূর্ণ মুখ গহ্বর, পায়ের ক্ষুরের মধ্যভাগে ঘা বা ক্ষত সুষ্টি হয়। ক্ষত সৃষ্টির ফলে মুখ থেকে লালা ঝরে, সাদা ফেনা বের হয়। কখনও বা ওলানে ফোসকার সৃষ্টি হয়। পশু খোঁড়াতে থাকে এবং

ফলগাছে লেয়ারিং/গুটি কলম/দাবা কলম পদ্ধতি

ফলগাছে লেয়ারিং/গুটি কলম/দাবা কলম পদ্ধতি সাধারণ তথ্যঃ দাবা কলম হচ্ছে -“মাতৃগাছের সঙ্গে সংযুক্ত অবস্থায় এর শাখায় অস্থানিক শিকড় গজিয়ে মাতৃগাছের হুবহু গুণসম্পন্ন চারা উৎপাদনের কৌশল”। অর্থাৎ ইপ্সিত ফলগাছের কোন শাখায় ক্ষত সৃস্টি করে সেখান থেকে আস্থানিক শিকড় গজিয়ে পরবর্তীতে এটিকে মাতৃগাছ থেকে বিচ্ছিন্ন করে একটি পুর্ণাঙ্গ স্বতন্ত্র গাছ হিসাবে তৈরী করা । বাংলাদেশের বিভিন্ন ফলের

স্বল্প পুঁজিতে লাভজনক মুরগির খামার

স্বল্প পুঁজিতে গড়ে উঠতে পারে লাভজনক মুরগির খামার কম সময়, কম পরিশ্রম আর স্বল্প পুঁজিতে মুরগির খামার করা যায়। ২০ থেকে ২৫ হাজার টাকা নিয়েই শুরু করা যায় এ ব্যবসা। মাত্র দেড় থেকে তিন মাসের মধ্যে উঠে আসে আয়। মুরগির মাংস ও ডিমের পাশাপাশি মুরগির বিষ্ঠা জৈব সার হিসেবে বিক্রি করা যায়। আর পরিবারের লোকজনের

ভূমিহীনদের পথের দিশা তিস্তাচরের মিষ্টি কুমড়া, তিস্তাচরের মিষ্টি কুমড়া, মিষ্টি কুমড়া

ভূমিহীনদের পথের দিশা তিস্তাচরের মিষ্টি কুমড়া

ভূমিহীনদের পথের দিশা তিস্তাচরের মিষ্টি কুমড়া দৃষ্টিভঙ্গিটা ছিল কিছুই না হওয়ার চেয়ে অন্তত কিছু হোক। গবেষণার ভিত্তিতে কৃষি উৎপাদন ও ভূমিহীন কৃষকদের জীবনমানের উন্নয়নকে সামনে রেখে কাজ শুরু। আর শুরুর বছরেই অনাবাদি ও পড়ে থাকা বালুচরে পিট পদ্ধতিতে মিষ্টি কুমড়া চাষে মেলে সফলতা। এরপর কেবল সামনের দিকে এগিয়ে চলার গল্প। চাষির সংখ্যা বেড়ে শত শত

সাপাহারে আমের চারা রোপনের হিড়িক

সাপাহারে আমের চারা রোপনের হিড়িক

নওগাঁ জেলার ঠাঁঠাঁ বরেন্দ্র অঞ্চল হিসেবে পরিচিত সাপাহার উপজেলায় চলতি মৌসুমে বিভিন্ন প্রজাতীর দেশীয় ফলের পাশাপাশি সুমিষ্ট রসালো ফল আমের চারা রোপন ও বাগান তৈরীর হিড়িক পড়েছে। সাপাহার উপজেলার এঁটেল মাটিতে উৎপাদিত বিভিন্ন প্রজাতীর আম অত্যান্ত মিষ্টি ও সুস্বাদু হওয়ায় ইতোমধ্যে দেশের মানুষের নিকট এই এলাকাটি বেশ পরিচিতি লাভ করেছে। এখানে অতি অল্প সময়ের মধ্যে

ঝিঙ্গা চাষ

ঝিঙ্গা বাংলাদেশের একটি জনপ্রিয় গ্রীষ্মকালীন সবজি। এর প্রতি ১০০ গ্রাম ভক্ষণযোগ্য অংশের মধ্যে রয়েছে ০.৫ গ্রাম প্রোটিন, ৩৩.৬ মাইক্রো গ্রাম বিটা-ক্যারোটিন, ৫ মিগ্রা ভিটামিন সি, ১৮ মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম এবং ২৭ মিলিগ্রাম ফসফরাস। জলবায়ু ও মাটি  দীর্ঘ সময়ব্যাপী উষ্ণ ও আর্দ্র আবহাওয়া এবং প্রচুর সূর্যালোক থাকে এমন এলাকা ঝিঙ্গা চাষের জন্য উত্তম। সুনিষ্কাশিত উচ্চ জৈব পদার্থ

নরসিংদীর চরাঞ্চলে বাড়ছে অনাবাদী কৃষি জমির পরিমাণ

নরসিংদীর চরাঞ্চলে প্রতি বছরই বাড়ছে অনাবাদী কৃষি জমির পরিমাণ। খরচের তুলনায় লাভ কম হওয়াসহ নানা কারণে ফসল আবাদ থেকে সরে যাচ্ছেন কৃষকরা। এতে পতিত পড়ে থাকছে শত শত হেক্টর কৃষি জমি। কৃষি কাজ না থাকায় বাধ্য হয়ে বিদেশে পাড়ি জমাচ্ছেন অনেকে। সরেজমিন চরাঞ্চল ঘুরে দেখা গেছে, নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলার নিলক্ষা ইউনিয়নজুড়ে রয়েছে ১৬ শ’ হেক্টর

    Top