আধুনিক যন্ত্র দিয়ে ধান কাটায় লাভবান হচ্ছেন কৃষক

আধুনিক যন্ত্র দিয়ে ধান কাটা, মাড়াই ও ঝাড়াই করায় কৃষকরা খুবই লাভবান হচ্ছেন। এতে তাদের খরচ কম পড়ছে ও শ্রমিক সংকট সমস্যা দূর হচ্ছে।

 

কৃষি সম্প্র্রসারণ অফিস সূত্র জানায়, মাঠে ধান প্রায় একসঙ্গে পেকে যায়। তাই কাটার সময় শ্রমিক সংকট দেখা দেয়। বোরো ধান কাটার সময় আগাম বন্যা ও অতিবৃষ্টিতে ক্ষতির আশঙ্কা থাকে। শ্রমিক সংকট থাকায় দ্রুত কাটা, মাড়াই ও ঝাড়াই করা সম্ভব হয় না। কৃষকের এ সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যে সরকার খামার যান্ত্রিকীকরণের উপর গুরুত্ব দিয়ে কার্যক্রম গ্রহণ করেছে। ধান কাটা যন্ত্র রিপার, কম্বাইন্ড হারভেস্টার ও মাড়াই যন্ত্রে ৫০-৭০% ভর্তুকি দেওয়ার মাধ্যমে যন্ত্রপাতি সরবরাহ করা হচ্ছে। এই কার্যক্রমে উদ্যোক্তারাও এগিয়ে আসতে শুরু করেছে।

 

আধুনিক কৃষি মটরসের মালিক মো. রফিকুল ইসলাম জানান, কম্বাইন্ড হারভেস্টারের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। এ জেলায় ২১টি রিপার দিয়ে ধান দ্রুত কাটা চলমান রয়েছে।  কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো. আবু নাছের জানান, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায় এ বছর ১ লাখ ১১ হাজার ৯৫০ হেক্টর জমিতে বোরো ধান আবাদ হয়েছে। যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৫৫৭৬ হেক্টর বেশি। ইতোমধ্যে হাওর এলাকায় শতভাগ জমির ধান কাটা হয়েছে। হাওর বহির্ভূত এলাকায় প্রায় ৪৫% জমির ধান কাটা হয়েছে।