মৎস্যসম্পদ

দেশী ছোট মাছের চাষাবাদ ও সংরক্ষণ

দেশী ছোট মাছের চাষাবাদ ও সংরক্ষণ

দেশী ছোট মাছের চাষাবাদ ও সংরক্ষণ যেসব মাছ পূর্ণবয়স্ক অবস্থায় ৫–২৫ সে.মি. আকারের হয় সাধারণত সেগুলোকে ছোট মাছ বলা হয। ইংরেজিতে ছোট মাছ নামে পরিচিত। প্রাচীনকাল হতে মলা, পুঁটি, চেলা, চান্দা, চাপিলা, মেনি, বাইম, খলিশা, টেংরা, ফলি, পাবদা, শিং, মাগুর ইত্যাদি ছোট মাছ এ দেশের মানুষের বিশেষ করে গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর খাদ্য তালিকার অবিচ্ছেদ্য অংশ হয়ে আছে। বিভিন্ন প্রজাতির এসব ছোট মাছে ভিটামিন ও খনিজ পদার্থসহ খাদ্য ও পুষ্টিমান

দেশি পাবদার চাষ প্রযুক্তি

দেশি পাবদার চাষ প্রযুক্তি পাবদা মাছ একটি বিলুপ্ত প্রজাতির মাছ। এই মাছ অত্যন- সুস্বাদু এবং জনপ্রিয়। আমাদের দেশে বেশ আগে হাওড়-বাঁওড় -বিলে এই মাছটির পাওয়া যেত। কালের বিবর্তনে প্রাকৃতিক অভয়ারণ্য নষ্ট হয়ে যাওয়ার ফলে এই মাছটি আমাদের দেশ থেকে বিলুপ্ত হতে চলেছে। আমরা এই মাছটিকে ব্যাপকভাবে উৎপাদনের জন্য অনেক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে ২০০২ সালে ব্যাপকভাবে পোনা

দেশি মাছ

দেশি মাছ       বাংলাদেশের মাছের তালিকা তেলোটাকি, বাংলাদেশের একটি সংরক্ষিত মাছ বাংলাদেশের সীমানার ভেতরে চার শত প্রজাতির অধিক মাছ পাওয়া যায়। মাছের দিক দিয়ে বাংলাদেশ খুব সমৃদ্ধ। মাছ উৎপাদনেও বাংলাদেশ সামনের কাতারে অবস্থান করছে। মাছে ভাতে বাঙ্গালী তাই নদী মাতৃক বাংলাদেশের চিরাচরিত প্রবাদ। প্রায় চার শতের অধিক নদী, অসংখ্য খাল, বিল, হাওর, বাওর, ডোবা, নালার বাংলাদেশে পাওয়া

দেশি ট্যাংরার কৃত্রিম প্রজনন ও চাষ পদ্ধতি উদ্ভাবন

দেশি ট্যাংরার কৃত্রিম প্রজনন ও চাষ পদ্ধতি উদ্ভাবন

দেশি ট্যাংরার কৃত্রিম প্রজনন ও চাষ পদ্ধতি উদ্ভাবন দেশি ট্যাংরা মাছের কৃত্রিম প্রজনন ও চাষের কৌশল উদ্ভাবন করেছেন মৎস্যবিজ্ঞানীরা। বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের সৈয়দপুর স্বাদু পানি উপকেন্দ্রের একদল বিজ্ঞানী এটি উদ্ভাবন করেন। গত জুনে এই প্রযুক্তি মৎস্য মন্ত্রণালয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে হস্তান্তর করা হয়েছে। সৈয়দপুরে অনেক দিন থেকেই মৎস্যবিজ্ঞানীরা দেশি জাতের বিলুপ্তপ্রায় মাছ নিয়ে গবেষণা করছেন। তাঁরা

ঘরে মাছ চাষ

ঘরে মাছ চাষ ‘ডাঙায় চরে রুই-কাতলা!’ সেই কবে মজা করে লিখেছিলেন যোগীন্দ্রনাথ সরকার। এবার সত্যি সত্যি ময়মনসিংহ শহরে পুকুর কিংবা খালের বদলে শিং, পাবদার চাষ হচ্ছে ডাঙায়, একেবারে ঘরের ভেতর। উৎপাদনও অনেক গুণ। দেখতে গিয়েছিলেন শাখাওয়াত উল্লাহ ছাড়া হচ্ছে মাছের পোনা পুকুরে যেখানে প্রতি ঘনমিটার পানিতে মাছের উৎপাদন মাত্র এক থেকে দুই কেজি, সেখানে ঘরের

বাকৃবি গবেষকের সাফল্যঃছাদে মাছ ও সবজির সমন্বিত চাষ(অ্যাকোয়াপনিক্স)

ছাদে মাছ ও সবজির সমন্বিত চাষ বাড়ির ছাদে অনেকেই সবজি বা ফলমূলের চাষ করেন। তারা চাইলে সবজি বা ফলমূলের পাশাপাশি মাছ চাষ করতে পারেন। এতে বাড়তি তেমন খরচ নেই। অন্যদিকে আমিষের জোগানও হবে। আবার খুব বেশি ঝামেলারও নয়। সম্প্রতি ছাদে সবজির পাশাপাশি মাছ চাষ পদ্ধতি নিয়ে গবেষণা করেছেন ময়মনসিংহের বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের একোয়াকালচার বিভাগের অধ্যাপক

নার্সারি পুকুর ব্যবস্থাপনা

নার্সারি পুকুর ব্যবস্থাপনায় করণীয়

মাছ চাষের ক্ষেত্রে রেনু পোনাকে ছোট জলাশয়ে প্রতিপালন করে অপেক্ষাকৃত বড় জলাশয়ে বা পুকুরে ছেড়ে মাছ চাষ করা হয়। যে সকল ছোট পুকুরে বা জলাশয়ে রেনু পোনা বা ধানী পোনা অতি যত্ন সহকারে পালন করা হয় তাকে আতুর পুকুর বা নার্সারি পুকুর বলে। মাছের রেনু বা ধানী পোনা প্রয়োজনীয় পরিচর্যার মাধ্যমে লালন পালন করে মজুদ পুকুরে

মাছ চাষের র্পূনাঙ্গ ব্যবস্থাপনা

মাছ চাষের র্পূনাঙ্গ ব্যবস্থাপনা

মাছ চাষের র্পূনাঙ্গ ব্যবস্থাপনা মুরগির মাছ চাষে লাভবান হতে হলে মাছ চাষ পরিকল্পনা থেকে শুরু করে বাজারজাত করা পর্যন্ত প্রতিটি পর্বে চাষিকে কিছু নিয়মকানুন মেনে চলতে হয়। মাছচাষির অজ্ঞতা বা অবহেলায় অনেক সময়েই তারা ভুল করে থাকেন এবং পরবর্তীতে ভুলের মাশুল দিতে হয়। চাষিদের এসব ভুল লাভজনক মাছচাষের ক্ষেত্রে অন্তরায়। তাদের এসব ভুল বা অনিয়মগুলো

কুচিয়া মাছ চাষ করে হোন স্বাবলম্বী

কুচিয়া মাছ চাষ করে হোন স্বাবলম্বী

সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলায় মৎস্য অধিপ্তরের সহযোগীতায় বাংলাদেশের নির্বাচিত এলাকায় কুচিয়া ও কাকড়া চাষ এবং গবেষনা প্রকল্পের আওতায় বাণিজ্যিকভাবে শুরু করেছেন কুইচ্চা মাছের চাষ। ভিডিও দিপ্ত টিভি শুধু তাই নয় চলনবিল এলাকার তাড়াশ, রায়গঞ্জ, গুরুদাশপুর, সিংড়া, চাটমোহর, ভাঙ্গুড়া ও ফরিদপুরসহ বেশ কিছু গ্রামে কুচিয়া চাষ অনেকেই বলে জানা গেছে। কুচিয়া দেখতে সাপের মত। এর রয়েছে বিভিন্ন

মাছের প্রাকৃতিক খাদ্য

মাছের প্রাকৃতিক খাদ্য

প্রাকৃতিক খাদ্য মাছের নানা ধরনের খাদ্যসামগ্রীকে প্রধানত দু’ ভাগে ভাগ করা যায় — প্রাকৃতিক খাদ্য ও পরিপূরক খাদ্য বা কৃত্রিম খাদ্য। প্রাকৃতিক খাদ্য : পুকুরে বা জলাশয়ে প্রাকৃতিক উপায়ে এক ধরনের খাদ্য উত্পন্ন হয়। এদের প্রাকৃতিক খাদ্য বলে। এরা খুব ছোট ছোট হয় এবং জলের ঢেউ যে দিকে যায়, এদের গতিও সে দিকে হয়। এই

পাবদা মাছ চাষ

পাবদা মাছ চাষ

পাবদা মাছ চাষ পুকুর নির্বাচন • এ মাছ চাষের জন্য ৭-৮ মাস পানি থাকে এ রকম ১৫-২০ শতাংশের পুকুর/জলাশয় নির্বাচন করা যায়। • পুকুরটি বন্যামুক্ত এবং পর্যাপ্ত আলো বাতাসের ব্যবস্থা থাকতে হবে। পুকুর প্রস্তুতি, পোনা মজুদ,খাদ্য ও সার প্রয়োগ •  পুকুরের পাড় মেরামত জলজ আগাছা পরিষ্কার করার পর শতাংশে ১কেজি হারে চুন প্রয়োগ করতে হবে।

শিং-মাগুর ও কৈ মাছ চাষ

শিং-মাগুর ও কৈ মাছ চাষ

বাংলাদেশে শিং-মাগুর ও কৈ অত্যন্ত সুস্বাদু  এবং পুষ্টিকর মাছ হিসেবে বহুল আলোচিত ও সমাদৃত। কিন্তু জলজ পরিবেশের আনুকূল্যের অভাব এবং অতিরিক্ত আহরণজনিত কারণে এসব মাছ অধুনা বিলুপ্তির পথে। এসব মাছ বিলুপ্তির হাত থেকে রক্ষার্থে বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট ও বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় গবেষণা কার্যক্রম শুরু করে সাম্প্রতিক সময়ে আশাব্যঞ্জক সাফল্য অর্জন করেছে। ফলে এ জাতীয়

গুগল প্লে স্টোরে ‘মৎস্য পরামর্শ’ অ্যাপ

দেশের মৎস্যচাষের আধুনিকায়ন ও উন্নয়নের লক্ষ্যে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের তৈরি অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ফোনের উপযোগী ‘মৎস্য পরামর্শ’ বা ফিশ অ্যাডভাইস নামক অ্যাপটি ফেব্রুয়ারি মাসে অনলাইনে অবমুক্ত করা হয়েছে। অ্যাপটি বর্তমানে গুগল প্লে স্টোরে পাওয়া যাচ্ছে। মৎস্যজীবীদের বিভিন্ন সমস্যার সমাধানসহ অ্যাপটিতে রয়েছে ছবিসহ মাছের বিভিন্ন রোগের বিবরণ ও প্রতিকার ব্যবস্থা, আধুনিক পদ্ধতিতে মাছের চাষাবাদ প্রণালী, মাছের

প্রাকৃতিক পদ্ধতিতে রাক্ষুসে শোল চাষ

দেশি জাতের মাছ যেখানে হারিয়ে যেতে বসেছে, সেখানে রাসায়নিক সার ও খাবার ছাড়াই মাছ চাষ শুরু করেছেন সাতক্ষীরার জাকির হোসেন। এরই মধ্যে তিনি শোল মাছ চাষ করে সবার নজর কেড়েছেন। মাত্র পাঁচ কাঠা আয়তনের একটি পুকুরে দেশি জাতের শোল মাছের চাষ শুরু করেন। কম খরচে অল্প কিছুদিনেই প্রায় পাঁচ মণ মাছ পেয়েছেন। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে

শীতে মাছ ও পুকুরের পরিচর্যা

ঋতুর আবর্তনের রূপসী বাংলা। ছ’ঋতুর ছয় রকমের বৈশিষ্ট্য। শীতের সকাল কবি সাহিত্যিকদের জন্য আকর্ষনিয় হলেও জনস্বাস্থ্য ও প্রাণিকুলের জন্য কখনই সুখ বয়ে আনে না। শীতকাল আসলেই সাথে নিয়ে আসে জীবের জন্য মারাতœক মারাতœক সব রোগ। আর তাই আমাদের নিজেদের সুরক্ষার পাশাপাশি শিশু বৃদ্ধ সহ আমাদের অধিনে থাকা পশু-পাখিদের উপরো যেমন বাড়তি নজর রাখতে হয় ঠিক

বাণিজ্যিক পদ্ধতিতে থাই কৈ চাষ

প্রাচীন কাল থেকে কৈ একটি অত্যন্ত পুষ্টিকর ও সুস্বাদু মাছ হিসাবে সমাদৃত। এক সময় বাংলাদেশের নদী-নালা, খাল-বিল, হাওর, বাওড় ও প্লাবন ভূমিতে প্রচুর পরিমাণে কৈ পাওয়া যেত। আবহমান কাল থেকে আমাদের দেশে জীয়র মাছ হিসাবে কৈ মাছকে অতিথি আপ্যায়নের জন্য পরিবেশণ করা অত্যন্ত আন্তরিকতা ও সম্মানের বলে বিবেচনা করা হয়ে থাকে। সে সময় এ মাছ

Top