ছাদ/ব্যালকনির উপযোগী ফুল মর্নিং গ্লোরী

ছাদ/ব্যালকনির উপযোগী ফুল মর্নিং গ্লোরী

অদ্ভুত এক সুন্দর ফুলের নাম মর্নিং গ্লোরী । নামটাও বেশ চমৎকার । অপরূপ সুন্দর ফুলটি যখন ছাদ বা ব্যালকনিতে ফুটে তখন সবার নজর কাড়ে। মর্নিং গ্লোরীর অনেক প্রজাতি রয়েছে। প্রায় এক হাজার প্রজাতির মর্নিং গ্লোরী পাওয়া যায় বিশ্বের নানা প্রান্তে। তাদের নানা রঙ, নানা রূপ।মর্নিং গ্লোরী মূলত মেক্সিকো ও সেন্ট্রাল আমেরিকার অধিবাসী। প্রায় সব ধরনের মর্নিং গ্লোরির বৈশিষ্ট্য একই রকম। লতানো গাছ, পানপাতা আকৃতির পাতা এবং ফুল ফানেল আকৃতির। নীল, উজ্জ্বল লাল, সাদা, গাঢ় বেগুনি, গোলাপিসহ নানা রঙের মর্নিং গ্লোরী দেখা যায় । তবে আমাদের দেশে সবচেয়ে বেশি দেখা যায় গাঢ় বেগুনি, গোলাপি ও আকাশি নীল রঙগুলো। ফুল সকালে ফোটে এবং দুপুরে নেতিয়ে যায়। মর্নিং গ্লোরীর চারা হয় বীজ থেকে। টবেই লাগানো সম্ভব এটি। বছরের যেকোনো সময়ই এ ফুলের চারা রোপণ বা বীজ বপন করা যায়। তবে অন্য গাছের মতোই বর্ষাকাল মর্নিং গ্লোরী লাগানোর জন্য উপযুক্ত । চারাগুলোকে তার বা অন্যকিছু দিয়ে উপরে লতানোর বন্দোবস্ত করে দিতে হয় । বারান্দায় টবে লাগালে গ্রিলেও লতানো যায় ।

Top
%d bloggers like this: