চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি বিশ্ববিদ্যালয় বুধবার খুলছে

Chittagong-Veterinary-and-Animal-Sciences-University

ছাত্র সংঘর্ষের প্রায় দুই সপ্তাহ পর আগামী বুধবার চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও অ্যানিমেল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় খুলছে। এর আগে কাল সোমবার সকাল নয়টা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলগুলো খুলে দেওয়া হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ে সকল প্রকার মিছিল-সমাবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

আজ রোববার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক গৌতম বুদ্ধ দাশের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ডিন, বিভাগীয় প্রধান ও পরিচালকদের সভায় এসব সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মীর্জা ফারুক ইমাম ওই সভার সিদ্ধান্ত সম্পর্কে প্রথম আলোকে অবহিত করেন।

মীর্জা ফারুক ইমাম প্রথম আলোকে বলেন, বুধবার থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষাকার্যক্রম শুরু হবে। শিক্ষার্থীরা কাল (সোমবার) সকাল থেকেই হলে উঠতে পারবেন।

সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ের আটজন ছাত্রকে সাময়িকভাবে আবাসিক হলে উঠতে না দেওয়ারও সিদ্ধান্ত হয়েছে।

গত ১২ এপ্রিল আন্তঃঅনুষদীয় ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেটেরিনারি মেডিসিন ও ফিশারিজ অনুষদের শিক্ষার্থীদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়।

সংঘর্ষের পরিপ্রেক্ষিতে ঘটনার দিন বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়। ছাত্রদের ওই দিন বিকেলের মধ্যে এবং ছাত্রীদের পরদিন সকাল ১০টার মধ্যে আবাসিক হল ত্যাগের নির্দেশ দেওয়া হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন সূত্র জানায়, সংঘর্ষের ঘটনায় জড়িত থাকার দায়ে আটজন ছাত্রকে সাময়িকভাবে আবাসিক হলে অবস্থান এবং প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে।

ওই আট ছাত্র হলেন—ভেটেরিনারি অনুষদের স্নাতকোত্তর শ্রেণির কল্যাণ আশিষ ভাদুরি, জগন্নাথ চন্দ্র দে ও ভুবন চন্দ্র হালদার, স্নাতক শ্রেণির আশিক হাজরা ও এস এম আবদুস সালাম। বাকিরা হলেন—ফিশারিজ অনুষদের স্নাতক শ্রেণির ছাত্র শফিকুল ইসলাম, সাজিদ মেহরাব সৌহার্দ্য ও ফরহাদুল ইসলাম।

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মীর্জা ফারুক ইমাম প্রথম আলোকে বলেন, প্রক্টরিয়াল বডির সিদ্ধান্ত ও তদন্ত কমিটির সুপারিশে আট ছাত্রকে সাময়িকভাবে হলে অবস্থান করতে না দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন পাওয়ার পর তাঁদের ব্যাপারে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

Top