কম সময়ে বেশি মুনাফার ফসল ধনিয়াপাতা

কম সময়ে বেশি মুনাফার ফসল ধনিয়াপাতা

কৃষি তথ্য কৃষির তথ্য মসলা চাষ মাঠ ফসল চাষ

কম সময়ে বেশি মুনাফার ফসল ধনিয়াপাতা

সবজি চাষের এলাকা হিসেবে পরিচিত রংপুরের মিঠাপুকুর, গঙ্গাচড়া ও কাউনিয়া উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় চাষিরা মৌসুমে একই জমিতে চারবার ধনেপাতার চাষ করছে। কম খরচে বেশি লাভ পাওয়ায় তারা নিজেরাই এই কৌশল রপ্ত করেছে। প্রতিদিন এসব এলাকা থেকে ট্রাকে করে ধনেপাতা ঢাকায় নিয়ে যায় পাইকাররা।

সরেজমিনে মিঠাপুকুরের রানীপুকুর ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, আঁকাবাঁকা মেঠোপথের দুই পাশে মাঝেমধ্যেই চোখে পড়ছে ধনেপাতার ক্ষেত। সেখানে নারীরা ব্যস্ত ধনেপাতা তোলায়। এ বছর ধনেপাতার ভালো ফলনের পাশাপাশি ভালো দামও পাচ্ছে কৃষকরা

মৌসুম শুরুর আগেই প্রথম দফায় আগাম চাষকৃত ধনেপাতার ব্যাপক চাহিদা থাকায় পাইকাররা সরাসরি ক্ষেতে এসে প্রতি কেজি ধনেপাতা ২০০ টাকা দরে কিনছে। বাজারে যা বিক্রি হচ্ছে ২৮০ থেকে ৩০০ টাকা কেজি দরে। অর্থাৎ প্রতি ১০০ গ্রাম ধনেপাতা ২৮ থেকে ৩০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

কৃষকরা জানায়, রবি মৌসুমে গম, সরিষা, আলুসহ বিভিন্ন ফসল চাষে খরচ বেশি কিন্তু লাভ কম। অথচ কম খরচে বেশি মুনাফা পাওয়া যায় ধনেপাতা চাষে। ৪০ দিনের ফসল ধনেপাতা একই জমিতে মৌসুমে পরপর চারবার চাষ করা যায়। এক বিঘা জমিতে ৩০ থেকে ৩৫ মণ ধনেপাতা উৎপাদন করা যায়। এতে ৩০ হাজার টাকা খরচ হলেও এক থেকে দেড় লাখ টাকার ধনেপাতা বিক্রি করা যায়।

রানীপুকুর ইউনিয়নের দৌলত রসুলপুর গ্রামের মোজাদ্দেদ মিয়া জানান, ‘তাঁর ৫ বিঘা জমি। সবগুলোতে এবার ধনেপাতা আবাদ করেছেন। লাভ হইবে দুই লাখ টাকার মতন। ’ ধনেপাতা চাষে খরচ কম হলেও লাভ বেশি বলে জানান তিনি।

একই এলাকার আবদুল হামিদ মিয়া বলেন, আমাদের এই এলাকায় রবি মৌসুমে শাকসবজির আবাদ বেশি হয়। এখানকার কৃষকরা ধান-পাটের আবাদ প্রায় ছেড়েই দিয়েছেন। তিনি নিজেও চার বিঘা জমিতে বিভিন্ন রকমের শাকসবজি আবাদ করেছেন উল্লেখ করে বলেন, ধনেপাতা চাষ করে অনেক লাভবান হয়েছেন। শীতকালে বাজারে স্বল্প সময়ের ফসল এই ধনেপাতার চাহিদা থাকে প্রচুর। দামও ভালো পাওয়া যায় বলে জানান তিনি। রংপুর সিটি বাজারসহ কাউনিয়া উপজেলার বিভিন্ন হাট-বাজার ঘুরে দেখা গেছে, শীতের আগাম শাকসবজির সঙ্গে বিক্রি হচ্ছে ধনেপাতা, যা ২৮০ থেকে ৩০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

আরোও পড়ুন  নরসিংদীর চরাঞ্চলে বাড়ছে অনাবাদী কৃষি জমির পরিমাণ

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর রংপুরের উপপরিচালক স ম আশরাফ আলী জানান, এক বিঘা জমিতে ধনিয়া চাষ করে কৃষক যে লাভ পেয়ে থাকেন অন্য কোনো ফসলে তা পান না। এ ছাড়া শুধু রবি মৌসুমেই একই জমিতে কমপক্ষে চারবার ধনেপাতার চাষ করছেন তাঁরা। গত বছর শীত মৌসুমে অনেক রকমের শাকসবজির পাশাপাশি রংপুরে ১৫০ হেক্টর জমিতে ধনেপাতা চাষ করা হয়।